শুক্রবার, অগাস্ট ১২

জাপান সীমান্তে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে চীন

0

ডেস্ক রিপোর্ট: চীন-তাইওয়ানের চরম উত্তেজনার মধ্যে দ্বীপটির জাপান সীমান্তবর্তী অর্থনৈতিক অঞ্চলে প্রথমবারের মতো ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে চীন। বৃহস্পতিবার টোকিওর প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, চীনের ছোড়া ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রথমবারের মতো জাপানের একচেটিয়া অর্থনৈতিক অঞ্চলে অবতরণ করেছে বলে মনে করা হচ্ছে। জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নোবুও কিশি সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের ধারণা চীন থেকে নিক্ষেপ করা নয়টি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের মধ্যে পাঁচটি জাপানের এক্সক্লুসিভ ইকোনমিক জোনের (ইইজেড) মধ্যে অবতরণ করেছে। কারণ চীন তাইওয়ানের চারপাশে জলসীমায় ব্যাপক সামরিক মহড়া চালাচ্ছে৷ কিশি জানান, ঘটনায় কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে চীনের কাছে প্রতিবাদ জানিয়েছে জাপান। বিষয়টি একটি গুরুতর সমস্যা যা আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা এবং আমাদের নাগরিকদের নিরাপত্তাকে প্রভাবিত করে। চীন তাইওয়ানের আশেপাশে তার সর্বকালের সর্ববৃহৎ সামরিক মহড়া করছে যেটিকে তারা তাদের ভূখণ্ড বলে মনে করে। এই দ্বীপটি প্রয়োজনে বল প্রয়োগ করে একদিন দখল করার অঙ্গীকার করেছে চীন। বেইজিংয়ের কঠোর সতর্কতা সত্ত্বেও মার্কিন হাউস স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির স্ব-শাসিত দ্বীপে সফরের মাধ্যমে সামরিক শক্তির প্রদর্শনী ছড়িয়ে পড়ে। জাপানের দক্ষিণতম দ্বীপ অঞ্চল ওকিনাওয়ার কিছু অংশ তাইওয়ানের কাছাকাছি। কিশি বলেন, জাপানের এক্সক্লুসিভ ইকোনমিক জোনে প্রথমবারের মতো চীনা ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র অবতরণ করেছে। ইইজেড তাদের আঞ্চলিক জলসীমার বাইরে, জাপানের উপকূলরেখা থেকে ২০০ নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত বিস্তৃত। নয়টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের পরিসংখ্যান ছিল জাপানি পক্ষের একটি মূল্যায়ন। কিশি বলেন, পাঁচটি ওকিনাওয়ার হেতেরুমা দ্বীপের দক্ষিণ-পশ্চিমে অবতরণ করেছে বলে মনে হচ্ছে। নয়টি ক্ষেপণাস্ত্রই সামরিক মহড়ার জন্য চীন কর্তৃক মনোনীত এলাকার মধ্যে পড়েছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Share.