সোমবার, ফেব্রুয়ারী ২৬

শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন কিংবদন্তি অভিনেতা শ্রীরাম লাগু

0

বিনোদন ডেস্ক: প্রবীণ অভিনেতা শ্রীরাম লাগু (Shriram Lagoo) মঙ্গলবার রাতে পুনের এক বেসরকারী হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে বার্ধক্য জনিত সমস্যার কারণেই মারা যান তিনি। মৃত্যুর সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৯২ বছর । নাট্যকার সতীশ আলেকার সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, “আমি তাঁর জামাইয়ের সাথে কথা বলেছি। বার্ধক্য জনিত সমস্যার কারণেই তিনি মারা গিয়েছেন।” শ্রীরাম লাগু হিন্দির পাশাপাশি মারাঠি সিনেমা ও থিয়েটারে অভিনয়ের জন্য সর্বাধিক পরিচিত ছিলেন। শ্রীরাম লাগু ২০ টিরও বেশি মারাঠি নাটক পরিচালনা করেছেন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর টুইটারে এই কিংবদন্তি অভিনেতাকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। “সর্বকালের মহান শিল্পী শ্রীরাম লাগুর প্রতি আমার শ্রদ্ধা। আমরা আজ এক বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ব্যক্তিকে হারালাম। একাধারে তিনি ছিলেন অনন্য নাট্য অভিনেতা, অন্যদিকে রুপালি পর্দায় আধিপত্য বিস্তার করেছিলেন তিনি। একই সাথে সমাজ সেবকও ছিলেন তিনি।” বলিউড অভিনেতা ঋষি কাপুর টুইটারে শ্রীরাম লাগুকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন। তিনি টুইট করেন, “সবচেয়ে স্বতঃস্ফূর্ত অভিনেতা ড. শ্রীরাম লাগু সাহাব আজ আর আমাদের মধ্যে নেই। বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্র-এ তাঁর সাথে কাজ করার সুযোগ হয়েছিল আমার। তবে দুর্ভাগ্যক্রমে গত ২৫ থেকে ৩০ বছর তাঁর সাথে কাজ করতে পারিনি। তিনি পুনেতে অবসর জীবন কাটিয়েছেন। লাভ ইউ ড. সাহাব। ”চলচ্চিত্র পরিচালক মধুর ভান্ডারকরও এই কিংবদন্তি অভিনেতার জন্য একটি শ্রুতিমধুর টুইট করেছেন। “প্রবীণ অভিনেতা ড. শ্রীরাম লাগু স্যারের মৃত্যুর খবর আমাকে ব্যথিত করেছে। তিনি একজন দুর্দান্ত সমাজবাদী ও বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী ছিলেন। থিয়েটার এবং চলচ্চিত্রে তাঁর অবদানের জন্য তিনি সর্বদা স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। ওম শান্তি।” শ্রীরাম লাগুর ফিল্মোগ্রাফিতে ‘সিনহসান’, ‘সামনা’, ‘পিনজরা’, ‘জাাকোল’, ‘খিচাদী’, ‘মুক্তা’ ও ‘মাসালা’-র মতো আইকনিক ফিল্ম রয়েছে। তাঁর চিত্তাকর্ষক ফিল্মোগ্রাফি ছাড়াও তিনি ‘লামান’ শিরোনামে তাঁর আত্মজীবনী লিখেছেন। তিনি ‘নাটসম্রাট’ এবং ‘হিমালয়চি সাওলি’-র মতো মারাঠি নাটকেও অভিনয় করেন। হিন্দি সিনেমার নিরিখে শ্রীরাম লাগু ‘একদিন আচনক’, ‘ঘরোন্দা’ এবং ‘লাওয়ারিস’-এর মতো ছবিতে অভিনয়ের জন্য সর্বাধিক খ্যাতি অর্জন করেন। শ্রীরাম লাগুর স্ত্রী দীপা লাগু এখনও জীবিত।

Share.